05:53pm  Monday, 30 Nov 2020 || 
 ||


এ কৃতিত্ব নিয়ে এলাকার বিভিন্ন মহল গৌরব প্রকাশ কওে চলেছেন। ক্যাপ্টেন নাজিয়া নুসরাত হোসেনের পারিবারিক সূত্র জানায়, নারী পাইলটের পিতা মোঃ মোশারফ হোসেন পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের একজন যুগ্ন সচিব হিসেবে কর্মরত আছেন। তার মাতা লায়লা বানু আক্তার একজন গৃহিনী। ক্যাপ্টেন নাজিয়া নুসরাত হোসেন ২০০৯ সালের ২৪ ডিসেম্বর ৬১ তম বিএমএ দীর্ঘমেয়াদী কোর্সের মাধ্যমে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ার্স কোরে কমিশন লাভ করেন। ইঞ্জিনিয়ার্স কোরের কোর্স শেষে গত বছর ১৬ নভেম্বর আর্মি অ্যাভিয়েশন বেসিক কোর্স - ৯ এ যোগদান করে প্রশিক্ষন শুরু করেন। এ প্রশিক্ষন শেষে গত ১৮ জুন তিনি সফলভাবে একক ও দ্বৈত উড্ডয়ন করে দেশের প্রথম নারী পাইলট হিসেবে কৃত্তিত্ব অর্জন করেছেন। সূত্র জানায়, উক্ত নারী পাইলটের পিতামহ প্রয়াত আলহাজ্ব শাহাদাত হোসেন এলাকার একজন বিশিষ্ট সমাজ সেবক ছিলেন। উপজেলা সদরের মাত্র আড়াই কি.মি. পশ্চিমে মেইন সড়ক ঘেষে তার বসতবাড়ী। প্রয়াত আলহাজ্ব শাহাদাত হোসেনের বড় ছেলে মোঃ মোশারফ হোসেন স্বাধীনতা উত্তর উপজেলার প্রথম বিসিএস ক্যাডার অন্তর্ভূক্তি হওয়ার পর তার বসতবাড়ী এলাকার নামকরন করা হয় ম্যাজিষ্ট্রেট বাড়ী মোড়। পরবর্তিতে তার বাড়ীর সামনে ম্যাজিষ্ট্রেট বাড়ী বাজার নামক এলাকাটি খ্যাতি পেয়েছে। বর্তমানে নারী পাইলট ক্যাপ্টেন নাজিয়া নুসরাত হোসেনের পিতা পনি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের একজন যুগ্ন সচিব। উক্ত পরিবারটি নিয়ে এলাকার বিভিন্ন মহল গৌরব প্রকাশ করে চলেছেন। শুক্রবার একই গ্রামের শিক্ষাবিদ ওয়াছেল উদ্দিন মাষ্টার (অব:) বিগত দেড় হাজার বছরের ইতিহাস সামনে রেখে বলা যায় নারী পাইলট ক্যাপ্টেন নাজিয়া নুসরাত হোসেন অত্র উপজেলার একটি উজ্জল তারকা, যিনি দেশ ও দশ রক্ষায় অগ্রনী ভূমিকা রাখবেন। একই দিন উপজেলা চেয়ারম্যান এ.জি.এম বাদল আমিন বলেন, দীর্ঘকাল ধরে মোঃ মোশারফ হোসেন যেমন এলাকাবাসীকে বটবৃক্ষের মত ছায়া দিয়ে আসছেন, আমি আশা করব তার মেয়ে নারী পাইলট ক্যাপ্টেন নাজিয়া নুসরাত হোসেনও শুধু দেশ রক্ষা নয়, মানুষের সুখ-দুঃখ আজীবন আতা দিয়ে উপলদ্ধি করবেন ।

 

নারী ও শিশু



Editor : Husnul Bari
Address : 8/A-8/B, Gawsul Azam Super Market, Newmarket, Dhaka-1205
Contact : 02-9674666, 01611504098

Powered by : Digital Synapse