12:29am  Saturday, 31 Oct 2020 || 
 ||


ধারণা করা হয় পৃথিবীর আদিমানবেরা নাকি লম্বায় বিশাল আকৃতির ছিলেন। পাশাপাশি এমন আরেকটি ধারণা হচ্ছে যে মানুষের উচ্চতা দিন দিন কমছে। এর পক্ষে বিজ্ঞানও বেশ কিছু যুক্তি দেখিয়েছে। তবে এ নিয়েও রয়েছে নানা বির্তক। সেই বিতর্কে যাচ্ছি না আজ। তবে এমন দশজন মানুষের কথা বলছ আজ যারা আর ১০ জন মানুষের মতো নয়। উচ্চাতার কারণে তারা পেয়েছেন বিশেষভাবে আলোচিত হয়েছেন দুনিয়া জুড়ে। এই তালিকা তৈরিতে হিসাব করা হয়েছে ১৮৩৫ সালের পর থেকে এখন পর্যন্ত পৃথিবীতে যারা জন্ম নিয়েছেন তাদের নিয়ে। তাহলে আসুন জেনে নিন উচ্চতায় পৃথিবীর সেরা ১০ মানুষের পরিচয়। ১. বিকাশ উপাল ( ৮ ফিট ২ ইঞ্চি ) সাধারনত মানুষের আকৃতি বাড়ে ছয় ফিট পর্যন্ত। এর খানিকটা বেশি হলেই তাকে তেলেঢ্যাঙ্গা, লম্বু, তালগাছসহ নানারকম উপাধি পেতে হয়। বিশেষ করে সেটি যদি বাংলাদেশের মতন দেশ হয় তবে তো কোন কথাই নেই। এই হিসেবে নারীরা আগেই হিসেবের বাইরে থাকেন। আর ছেলেদের ক্ষেত্রেও ছয় ফিটের বেশি উঁচু মানুষকে যথেষ্টর চাইতে বেশি লম্বা বলে ধরা হয় এখানে। কেমন হবে বলুন তো, যদি দেখা যায় একটি মানুষের উচ্চতা ৮ ফিটেরও বেশি হয়? এমনই একজন মানুষ ছিলেন ভারতে। তার নাম বিকাশ উপাল। ১৯৮৬ সালে জন্ম নেওয়া এই ব্যক্তিটি মারা যান ২০০৭ সালের ৩০ জুন । ২. ডন কোহেলার ( ৮ ফিট ২ ইঞ্চি ) ৭০ এর দশকের মানুষের জন্যে বেশ হিংসার পাত্র ছিলেন ডন। বিকাশের মতনই ৮ ফিট ২ ইঞ্চি ছিল ডনের উচ্চতা। তবে সেসময় তার সঙ্গে লড়ার জন্যে বিকাশের জন্ম হয়নি। বরং বিকাশের জন্মের কয়েকবছর আগেই ১৯৮১ সালে মাত্র ৫৫ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন তিনি। তবে ডন মারা গেলেও তার জমজ বোন কিন্তু রয়ে গিয়েছিলেন পৃথিবীতে এরপরেও আরো বেশকিছু দিন। ডনের মতন অতটা বেশি না হলেও তার উচ্চতা ছিল ৫ ফিট ৯ ইঞ্চি। ৩. বার্নার্ড কয়েন ( ৮ ফিট ২ ইঞ্চি ) পৃথিবীর সবচাইতে লম্বা মানুষের তালিকায় প্রথম দুজনের মতন একই উচ্চতার আরেকজন হচ্ছেন বার্নার্ড কয়েন। তবে এই উচ্চতা নিয়ে কিছুটা দ্বিধা-বিভক্তি কিন্তু রয়েই গিয়েছে সবসময় মানুষের ভেতরে। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় কয়েনের উচ্চতা ছিল ৮ ফিট। তবে মনে করা হয় মৃত্যুর আগ পর্যন্ত সেটি বেড়ে দাড়িয়েছিল ৮ ফিট ২ ইঞ্চিরও বেশি। অনেকটা ৮ ফিট ৪ ইঞ্চির ধারে-কাছেই হবে হয়তো সংখ্যাটা। যদিও এর কোন প্রমাণ কারো কাছে নেই। ৪. সুলতান কোসেন ( ৮ ফিট ৩ ইঞ্চি ) এতক্ষণ যাদের কথা বলেছি তারা সবাই-ই অনেক আগেই পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে পাড়ি জমিয়েছেন পরপারে। কিন্তু ২০০৯ সালে গিনেজ বুকের পাওয়া তথ্য ও প্রমাণানুসারে এখন পর্যন্ত পৃথিবীতে সবচাইতে লম্বা মানুষ হয়ে জীবিতাবস্থায় আছেন যে ব্যক্তিটি তিনি হচ্ছেন সুলতান কোসেন। অসম্ভব লম্বা সুলতানের পাশে দাড়ানো যে কোন স্বাভাবিক আকৃতির মানুষকেও খেলনা পুতুলের মতনই লাগে অনেকটা। ৫. অ্যাডওয়ার্ড বিউপরে ( ৮ ফিট ৩ ইঞ্চি ) শুধু নিজের লম্বাকৃতির জন্যেই সবার কাছে পরিচিত ছিলেন না অ্যাডওয়ার্ড। এর পাশাপাশি লোকে তাকে একনামে চিনত বার্নাম এন্ড বেইলি সার্কাসের কারণেও। সেখানে নিজের অস্বাভাবিক আকৃতিকে পুঁজি করে সার্কাসের স্ট্রংম্যানসহ আরো নানা কাজ করতেন অ্যাডওয়ার্ড। ১৮৮১ সালে জন্ম হয় অ্যাডওয়ার্ডের। মারা যান ১৯০৪ সালে। তবে মৃত্যুর আগে এবং এখনও পৃথিবীর সবচাইতে লম্বা কুস্তিগীর হিসেবেও নাম লিখিয়ে যান এই মানুষটি। ৬. ভ্যায়নো মিলিরিন ( ৮ ফিট ৩ ইঞ্চি ) ১৯৪০ সালের পর থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত পৃথিবীর জীবিত ব্যক্তিদের ভেতরে সবচাইতে লম্বা হওয়ার খ্যাতিটাকে নিজের করে রেখেছিলেন ছিলেন ভ্যায়নো। ৮ ফুট ৩ ইঞ্চির এই মানুষটি মারা যান ১৯৬৩ সালে। তবে অনেকের ভাষ্যমতে ত্রিশ বছর বয়সেই ২.৫১ মিটার উচ্চতা লাভ করে ফেলেছিলেন ভ্যায়নো। ৭. লিওনিড স্টাডনিক ( ৮ ফিট ৫.৫ ইঞ্চি ) এই তালিকার এখন অব্দি বলা মানুষগুলোর চাইতে অনেকটা লম্বা লিওনিডের বয়স খুব একটা বেশি নয়। এবং সবচাইতে মজার ব্যাপার হচ্ছে গিনেজ বুক অনুসারে সুলতান পৃথিবীর বর্তমান জীবিত সর্বোচ্চ লম্বা মানুষ হলেও বাস্তবে সেই জায়গাটা লিওনিডের প্রাপ্য। কিন্তু নিজেকে অন্যদের চাইতে আলাদা প্রমাণ করতে না চাওয়ায় গিনেজ বুকের স্বীকৃতি ফিরিয়ে দেন ৮ ফিট ৫.৫ ই্ঞ্চি উচ্চতার লিওনিড। ৮. জন এফ ক্যারোল ( ৮ ফিট ৭ ইঞ্চি ) ১৯৩২ সালে আমেরিকার নিউ ইয়র্কের বাফেলোতে জন্মগ্রহন করেন ক্যারোল। আর জন্মস্থানের নামানুসারেই চিকিৎসাবিজ্ঞানে বাফেলোর দানব বলে পরিচিত তিনি। নানা কারণে প্রায় সময়েই ক্যারোলের সত্যিকারের উচ্চতাটা নেওয়া যায়নি। ২২ বছর বয়সেই চিকিৎসকদের দারস্থ হতে হয় ক্যারোলকে। সেটাও নিজের উচ্চতার জন্যে। পুরোপুরি ঠিকঠাকভাবে না জানা গেলেও মনে করা হয় ক্যারোলের উচ্চতা শেষ দিকে ৯ ফিটের কাছাকাছি পর্যন্ত পৌঁছায়। ৯. জন রোগান ( ৮ ফিট ৮ ইঞ্চি ) ক্যারোলের উচ্চতাকে ঠিকভাবে জানতে না পারার দরুন পৃথিবীর সবচাইতে লম্বাকৃতির মানুষের তালিকায় রবার্ট ওয়াডলোয়ের পরপরই দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছেন জন রোগান। চিকিৎসাশাস্ত্রে এখন পর্যন্ত ৮ ফিটের চেয়ে বেশি উচ্চতার মোট ১৭ ব্যক্তির মধ্যে ভালোভাবেই জায়গা করে নিযে ছিলেন এই মানুষটি। তবে সেটা বেশিদিনের জন্যে নয়। টেনেসির সামার কাউন্টিতে ১৮৬৫ সালে জন্ম নিয়ে খুব দ্রুতই মৃত্যুবরণ করেন রোগান। ১৯০৫ সালে রোগে ভুগে মৃত্যু হয় তার। ১০. রবার্ট ওয়াডলো ( ৮ ফুট ১১.১ ইঞ্চি ) এতক্ষণ তো শুনলেন এখন অব্দি পৃথিবীতে জন্ম নেওয়া প্রথম নয়জন লম্বা মানুষের কথা। এবার বলছি তাদের সবাইকে ছাড়িয়ে গিয়েছেন যিনি তার কথা। অর্থাৎ পৃথিবীর সকল মানুষের উচ্চতাকে ছাড়িয়ে তালিকার প্রথম স্থানে রয়েছেন যিনি সেই মানুষটির কথা। তার নাম রবার্ট পারশিং ওয়াডলো। তিনি লম্বায় ছিলেন ৮ ফিট ১১.১ ইঞ্চি। সেই সঙ্গে চিকন স্বাস্থ্যের অধিকারী হওয়া সত্ত্বেও অর্জন করেন মোট ১৯৯ কেজি ওজন! তবে প্রচন্ড কষ্টকর ব্যাপার হচ্ছে ১৯১৮ সালে জন্মানো এই অবিশ্বাস্য রকমের লম্বা মানুষটি মাত্র ২২ বছর বয়সে ১৯৪০ সালে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

 

জানা-অজানা



Editor : Husnul Bari
Address : 8/A-8/B, Gawsul Azam Super Market, Newmarket, Dhaka-1205
Contact : 02-9674666, 01611504098

Powered by : Digital Synapse