11:21pm  Thursday, 23 Sep 2021 || 
 ||


শনিবার ২৪ ঘণ্টারও কম সময়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে পৃথক ৫টি দুর্ঘটনায় শিশুসহ অন্তত ১৫ জন নিহত হয়েছেন। এসব ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ২২ জন। শনিবার বিভিন্ন সময়ে বগুড়া, যশোর, চট্টগ্রাম, কুষ্টিয়া ও কিশোরগঞ্জে এসব দুর্ঘটনা ঘটে। এরমধ্যে চট্টগ্রামেই নিহত হয়েছেন ৬ জন। এ দুর্ঘটনায় নিহতরা সবাই সিএনজিতে ছিলেন। আমাদের কিশোরগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি জানান, শুক্রবার রাত ১টার দিকে জেলার কুলিয়ারচরে যাত্রীবাহী একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে গেলে তিনজন নিহত হন। ওই দুর্ঘটনায় আহত হন অন্তত ২০ জন। নিহতরা হলেন, ময়মনসিংহের নান্দাইল ‍উপজেলার আব্দুল মান্নানের স্ত্রী ওমেদা বেগম (৫২), দুলাল হোসেনের ছেলে জসিম উদ্দিন (৬০)। অপরজনের পরিচয় জানা যায়নি। কুলিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চৌধুরী মিজানুজ্জামান খান জানান, ঘন কুয়াশার কারণে অথবা হেলপার বাসটি চালানোর কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় করেসপন্ডেন্ট জানিয়েছেন, শনিবার সকাল ৯টার দিকে কুষ্টিয়া শহরের বিআরবি কেবলসের সামনে কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়কে বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি বাসের ধাক্কায় নিহত হন এক নসিমন চালক। নিহতের নাম জীবন মিয়া। এ ঘটনায় স্থানীয়রা বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকটি বাসে ভাঙচুর চালিয়েছে। এরপর সন্ধ্যায়ই বগুড়া, যশোর ও চট্টগ্রামে ঘটে তিনটি দুর্ঘটনা। সন্ধ্যা ৬টার দিকে চট্টগ্রামের সাতকানিয়া জাফর আহমেদ ডিগ্রি কলেজের সামনে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাস ও সিএনজি অটোরিক্শার মুখোমুখি সংঘর্ষে ৬ জন নিহত হন বলে জানান আমাদের চট্টগ্রাম করেসপন্ডেন্ট আলম দিদার। ওই দুর্ঘটনায় ৫ জন ঘটনাস্থলেই এবং একজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এই দুর্ঘটনার পর ঘাতক এস আলম পরিবহনের বাসের চালক ও হেলপার দুজনেই পালিয়ে যান বলে বাংলামেইলকে জানান চট্টগ্রাম জেলা ট্রাফিক পুলিশের পরির্দশক (দক্ষিণ) নাজমুল ইসলাম। আমাদের বগুড়া জেলা প্রতিনিধি জানান, শনিবার সন্ধ্যা পৌনে সাতটার দিকে জেলার শাজাহানপুরে মহাসড়ক পারাপারের সময় বগুড়া থেকে শেরপুরগামী করতোয়া গেটলক পরিবহনের একটি বাসের চাপায় তিনজন নিহত হন, যাদের দুজন সম্পর্কে মা-ছেলে। চট্টগ্রামের দুর্ঘটনার পর এ দুর্ঘটনাতেও চালক ও হেলপার পালিয়ে যান বলে জানিয়েছেন শাজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মান্নান। যশোর জেলা প্রতিনিধির পাঠানো খবরে জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যায় যশোর-মাগুরা মহাসড়কের যশোর সদর উপজেলার পাঁচবাড়িয়া নামক স্থানে হানিফ পরিবহনের একটি বাসের চাপায় আদর নামে আট বছরের এক শিশু নিহত হয়। তারআগে বেলা ১১টার দিকে আরবপুর মোড়ে মেয়েকে স্কুল থেকে নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে শাপলা পরিবহনের দ্রুতগামী একটি বাসের চাপায় নিহত হন মিজানুর রহমান নামে এক ব্যক্তি। মিজানুরের স্কুলপড়ুয়া মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

 

দিনের শেষে



Editor : Husnul Bari
Address : 8/A-8/B, Gawsul Azam Super Market, Newmarket, Dhaka-1205
Contact : 02-9674666, 01611504098

Powered by : Digital Synapse